রংমশাল, এ বং পজিটিভ নাট্য দলের স্ট্রীট আর্ট ফেস্টিভ্যাল - Songoti

রংমশাল, এ বং পজিটিভ নাট্য দলের স্ট্রীট আর্ট ফেস্টিভ্যাল

Share This

 


কলকাতাঃ এ বং পজিটিভ নাট্য দলের সদস্যরা মিলে স্ট্রীট আর্ট ফেস্টিভ্যাল আয়োজন করা হয়, যার নাম "রংমশাল"। এই বছর পাঁচে পা...এই বছর 'ও " ২৪শে ফেব্রুয়ারী থেকে ২৭শে ফেব্রুয়ারী - রংমশাল ২০২২" এই উৎসব চার দিন ব্যাপী পালন করা হবে... যেখানে বাংলার প্রায় লুপ্ত হয়ে যাওয়া প্রাচীন আর্ট গুলো কে তুলে এনে পার্ফম করানো হয় .. যেমন - পুতুল নাচ, ছৌ নাচ, কলকেপাতারি , বহুরূপী শিল্প, সাঁওতাল নাচ, পল্লী গান, পথ নাটক, পটের গান, ইত্যাদি..চিত্র শিল্পী ও হস্তশিল্পীরা তাদের প্রদর্শন করে থাকেন এই প্রাঙ্গনে। কলকাতার বুকে এই রকম এক উৎসব প্রতিটি মানুষের কাছে এক গর্বের অনুভুতি এনে দেয়। ১৬ই ফেব্রুয়ারি এক আনুষ্ঠানিক সন্ধ্যার মাধ্যমে রংমশালের প্রেশ মিট অনুষ্ঠিত হল। সেখানে উপস্থিত ছিলেন মানসী সিনহা্, জয় সেনগুপ্ত, সায়ন্তনী গুহঠাকুরতা এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন




 প্রযোজক অঙ্কিত দাস ও শুভঙ্কর মিত্র। অনুষ্ঠানের   স্পেশাল গেস্ট ছিলেন সুভাষ বেরা। দলের সেক্রেটারি সুরজিৎ বাবু জানান, "আমাদের নাটকের দলের নাম সিমলা এ বং পজিটিভ..... সিমলা দেওয়ার প্রধান মানে হলো আমরা নর্থ কলকাতার সিমলা পাড়ায় জন্মগ্রহণ করেছিলাম, এক চিলেকোঠার ঘরে...কয়েকটা ছেলে মেয়ে মিলে আর অনেক অনেক স্বপ্ন নিয়ে... আমাদের যাত্রা শুরু ২৭শে জুলাই ২০১৬ থেকে....আমরা প্রথমেই পথনাটক নিয়ে কাজ করা শুরু করি...তারপর বেশ কিছু প্রসেনিয়াম.....করেছি ( অচিন পাখি, দোসর, বাকি এক, হালুম, ঈশ্বর ও তুমি প্রভৃতি নাটক) ...তারপর আমাদের "চতুর্দিক" নামে পত্রিকা হয়েছে। এরপর ২০১৭ তে আমাদের ভাবনায় আসে...যে নাট্য দল মানেই তো নাট্য উৎসব কিন্তু আমরা....বিভিন্ন আর্টফর্ম নিয়ে কাজ করব...এবং প্রধানত বাংলা থেকে হারিয়ে যাওয়া শিল্প গুলো কে খুঁজে নিয়ে আসব।" পরিচালক বাপ্পা জানান, "কলকাতার মানুষের টেস্ট বদলাতে চাই...তারা ভুলেই গেছে ভালো কিছু দেখতে...সেই থেকেই জন্ম নেয় এই রংমশাল ফেস্টিভ্যালের। এই নামের প্রধান কারণ বিভিন্ন রঙের শিল্পকলাকে একই ছাদের তলায় নিয়ে আসা। প্রথম দু বছর কলেজ স্কোয়ারে হয় তারপর হেদুয়া পার্কে...বর্তমানে হেদুয়ার পাশের রাস্তায় অর্থাৎ.... স্কটিশ চার্চ কলেজের ঠিক সামনে.…. আমাদের ৫বছর হতে চলল রংমশাল....আমাদের বিশ্বাস এই ফেস্টিভ্যাল এর মধ্য দিয়েই আমরা আবার কলকাতার সংস্কৃতি ফিরিয়ে আনতে পারব। যা শুধুই আমাদের কলকাতা তাই কলকাতার একমাত্র স্ট্রিট আর্ট ফেস্টিভ্যাল ছড়িয়ে দিতে চাই বিভিন্ন প্রান্তে"

No comments:

Post a Comment

Pages