কে - ১২ সেগমেন্টের ছাত্রদের অনলাইনে আইটি শিক্ষা দেবে আই- টেক - Songoti

DEBI SAMMAN ADVERTISEMENT

কে - ১২ সেগমেন্টের ছাত্রদের অনলাইনে আইটি শিক্ষা দেবে আই- টেক

Share This


কলকাতা : জাতীয় শিক্ষানীতি ২০২০ শিক্ষার্থীদের মধ্যে একবিংশ শতাব্দীর দক্ষতা গড়ে তোলার কথা বিবেচনা করে তৈরি করা হয়েছে। তাহলেও, শেখানো দক্ষতা ও প্রদত্ত দক্ষতার মধ্যে একটি বিস্তর ব্যবধান বিদ্যমান। তবে শিক্ষার্থীদের মধ্যে যদি প্রথম থেকেই প্রাসঙ্গিক প্রশিক্ষণ সরবরাহ করা হয় তাহলে এই ব্যবধানটির মধ্যে সেতু রচনা করা সম্ভব হবে। এই লক্ষ্যেই আই এ এন টি প্রতিষ্ঠিত করেছিল আই- টেক, যা ৬ - ১২ ক্লাসের (সাইন্স, কমার্স ও আর্টস স্ট্রিম) ছাত্রদের জন্য ১০০% অনলাইন আইটি স্কিল ট্রেনিং প্ল্যাটফর্ম। আই - টেক কোর্সগুলি টেকনোলজি স্ক্লিলিং - কোডিং, আইটি ফান্ডামেন্টালস, ক্লাউড কম্পিউটিং, সাইবারসিকিউরিটি, রোবটিক্স, আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স, পাইথন ইত্যাদি বিষয়গুলির সমন্বযয়ে তৈরি হবে এবং কগনিটিভ লার্নিং হবে- সেলফ এনরিচমেন্ট, মাইন্ড ম্যাপিং, জেনারেল নলেজ ইত্যাদি'র সমন্বয়ে। এই কোর্সগুলি শিক্ষার্থীদের শিক্ষায় একটি নতুন মাত্রা যোগ


 করবে, যা তাদের শ্রেণিকক্ষের শিক্ষার সঙ্গেও সামঞ্জস্যপূর্ণ হবে। রাজ্য বোর্ড, সি বি এস ই অথবা আই সি এস ই-র অন্তর্ভুক্ত শিক্ষার্থীরা এই কোর্সগুলি গ্রহণ করতে পারবে। গুজরাটি মাধ্যম, হিন্দি মাধ্যম অথবা সরকারি বা বেসরকারি ইংরেজি মাধ্যমে পড়াশুনা করা ছাত্র-ছাত্রী যা-ই হোক না কেন, আগামী বছরগুলিতে আইটি শিক্ষা সমস্ত শিক্ষার্থীদের জন্য আবশ্যিক হয়ে উঠবে। কোর্সের বিষয়বস্তু দক্ষতা ও জ্ঞানের সংমিশ্রণ এবং ভবিষ্যতের প্রয়োজনীয়তার কথা মাথায় রেখে তৈরি করা হয়েছে। এগিয়ে যাওয়া, এই দক্ষতা দিয়ে সমৃদ্ধ একটি সকল ক্যারিয়ার গঠনের ক্ষেত্রে এটি একটি আবশ্যিক হয়ে উঠবে।' বললেন আই এ এন টি'র ম্যানেজিং ডিরেক্টর ভক্তি ওঝা খেরানি। এই আই-টেক কোর্সগুলিকে চারটি বিভাগে বিভক্ত করা হয়েছে। এগুলি হল- ৬ ও ৭ ক্লাসের জন্য আই- টেক জুনিয়র, ৮ ও ৯ ক্লাসের জন্য আই-টেক সিনিয়র, ১০ থেকে ১২ ক্লাসের জন্য আই-টেক এক্সপার্ট এবং ১২ ক্লাসের ওপরে আই- টেক সুপ্রিম। এই কোর্সগুলি সাইন্স, ম্যাথামেটিক্স ও টেকনোলজি'র সংমিশ্রণে ডিজাইন করা হয়েছে, যা শিক্ষার্থীদের বাস্তব জীবনে সাহায্য করবে। ভারতে প্রায় ১৮০ মিলিয়ন (১৮ কোটি) ছাত্র ছাত্রী রয়েছে যারা ৬ থেকে ১২ ক্লাসে পড়ে। এগিয়ে যেতে, আই এ এন টি'র লক্ষ্য, ৩ ক্লাস থেকে আইটি শিক্ষার প্রশিক্ষণের সুযোগ এনে দেওয়া, যার ফলে সম্ভাব্য শিক্ষার্থীদের সংখ্যা আশ্চর্যজনকভাবে ২১০ মিলিয়ন (২১ কোটি) হয়ে যেতে পারে। এই বিশাল সংখ্যক শিক্ষার্থীদের কাছে পৌঁছানোর জন্য আই এ এন টি ২৫,০০০ ডিজিটাল ফ্র্যাঞ্চাইজি স্থাপনের লক্ষ্য নিয়েছে, যার ফলে নতুন করে কর্মসংস্থানেরও সুযোগ তৈরি হবে। এই কোর্সগুলি শেখানো হবে অনলাইন প্ল্যাটফর্ম-এর মাধ্যমে। ব্যাচগুলি সীমাবদ্ধ থাকবে। শিক্ষার্থীরা যে ভাষায় স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করে, সেই ভাষায় তাদের শেখানো হবে। সরকারের অনলাইন ডিজিটাল উদ্যোগ, একটি ক্রমবর্ধমান স্মার্টফোন ভিত্তি, ইন্টারনেটের অনুপ্রবেশ, একটি বিশাল সংখ্যক তরুণ প্রজন্ম'র জনগোষ্ঠী, অনলাইন শিক্ষার ক্ষেত্রে তুলনামূলকভাবে কম খরচ এবং অন্যান্য বিভিন্ন কারণগুলির জন্য ভারতীয় অনলাইন এডুকেশন সেগমেন্ট 2 বিলিয়ন মার্কিন ডলারের বলে মনে করা হচ্ছে।

No comments:

Post a Comment


Debi Samman

Pages