ডুরেক্স এর নেতৃত্বে 'দ্য বার্ডস অ্যান্ড বিজ টক' উত্তর-পূর্বাঞ্চলের কিশোর-কিশোরীদের ক্ষমতায়নের জন্য লঞ্চ করল 'লেটস টক এবাউট ইট' ক্যাম্পেইন - Songoti

ডুরেক্স এর নেতৃত্বে 'দ্য বার্ডস অ্যান্ড বিজ টক' উত্তর-পূর্বাঞ্চলের কিশোর-কিশোরীদের ক্ষমতায়নের জন্য লঞ্চ করল 'লেটস টক এবাউট ইট' ক্যাম্পেইন

Share This

 কনজিউমার হেলথকেয়ার এর গ্লোবাল লিডার, রেকিট চালু করল তাদের ‘দ্য বার্ডস অ্যান্ড বিজ টক' প্রোগ্রামের দ্বিতীয় বর্ষ, যা পরিচালিত হয়েছে বয়:সন্ধিকালের ছেলে মেয়েদের দিকে নজর রেখে। তিন বছরে উত্তর-পূর্ব ভারতের  6 টি রাজ্য, সিকিম, অরুণাচল প্রদেশ, নাগাল্যান্ড, মেঘালয়, মনিপুর ও মিজোরামের 10 থেকে 19 বছর বয়সি এইরকম 2 মিলিয়ন ছেলেমেয়েদের কাছে পৌঁছানোর লক্ষ্যে এই প্রোগ্রামটি চালু করা হয়েছে। এই প্রোগ্রামটির দ্বিতীয় বর্ষ-কে স্মরণীয় করে রাখার জন্য এবং গৌরব জনক এই মাসটিকে উদযাপনের জন্য এবার এই পর্বের থিম সং করা হয়েছে, 'লেটস টক এবাউট ইট'

গতবছর মনিপুর, সিকিম এবং অরুণাচল প্রদেশের রাজ্য সরকারের সহযোগিতায় শুরু হয়েছিল 'দ্য বার্ডস এন্ড বিজ' প্রোগ্রাম। এটি ছিল 2-লেভেলের ইন্টারেক্টিভ, অ্যানিমেটেড পাঠ্যক্রম যা বেড়ে ওঠা ছেলেমেয়েদের লাইফ স্কিলকে কভার করে এবং অন্তর্ভুক্তি, সচেতনতা, সম্মতি, সুরক্ষা ইত্যাদি বিষয়ের মূল নীতিগুলি তাদের মধ্যে প্রচার করতে সাহায্য করে। দ্বিতীয় বর্ষে এই প্রোগ্রাম তৈরি এবং লঞ্চ করা হয়েছে তার ডিজিটাল ইকোসিস্টেমকে কাজে লাগিয়ে, যা এই বিষয়টিকে সুনিশ্চিত করতে পারে, যেন কোভিড অতিমারি ছেলেমেয়েদের শেখা ও বিকাশের পথে বাধা হয়ে দাঁড়াতে না পারে। প্রোগ্রামের ডিজিটাল ইকোসিস্টেমের মধ্যে রয়েছে ই- লার্নিং প্ল্যাটফর্ম যা সমগ্র রাজ্য জুড়ে ছাত্রদের মধ্যে পাঠ্যক্রমকে ছড়িয়ে দিতে পারে এবং সেই সঙ্গে পুরস্কার ও স্বীকৃতির কর্মসূচিও জুড়ে দেওয়া হয়েছে স্কুলগুলি, শিক্ষক শিক্ষিকা ও ছাত্র-ছাত্রীদের উৎসাহিত করার জন্য। এর মাধ্যমে শিক্ষক-শিক্ষিকা ও ছাত্র-ছাত্রীরা বিষয়বস্তুর সঙ্গে নিবিড় ভাবে সম্পৃক্ত হতে পারবে। ই- লার্নিং প্লাটফর্মকে সাপোর্ট  করে একটি এ আই- সক্ষম চ্যাটবট এবং একটি ওয়েবসাইটের সঙ্গে পডকাস্ট চ্যানেল যুক্ত করা হয়েছে যার মাধ্যমে এই সমগ্র প্রোগ্রামটি পূর্ণতা পেয়েছে। এই কর্মসূচির সামগ্রিক দৃষ্টিভঙ্গি সমস্ত রাজ্য জুড়ে স্বাস্থ্য দিবস-এর মত একটি বিশেষ দিনকে উদযাপনের ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ করে তোলে এবং এর সমৃদ্ধ মিউজিক, আর্ট ও কালচার- এর উপস্থাপনার মাধ্যমে এই বিষয়টিকে সুনিশ্চিত করে যে জ্ঞান কেবলমাত্র ক্লাসের মধ্যে সীমাবদ্ধ থাকেনা।

 

এই কর্মসূচিকে উদযাপন করার ক্ষেত্রে গৌরবজনক মাসটি হল এলজিবিটিকিউআইএ সম্প্রদায়ের বিষয়ে সচেতনতা তৈরি ও তাদের অন্তর্ভুক্তির বিষয়ে প্রচারের জন্য একটি সময় এবং এই বিশেষ সময়ে কিশোর-কিশোরী ও তরুণ-তরুণীদের মধ্যে সঠিক তথ্য, ধারণা ও জ্ঞান সরবরাহ করে তাদের মধ্যে ভুলভাবে থাকা কুসংস্কার ও বৈষম্যের মনোভাবের সমস্যাগুলিকে কাটিয়ে তুলতে সাহায্য করা হয়।

 

রেকিট-এর এসভিপি, এসওএ, মি. গৌরব জৈন বলেন, 'দ্য বার্ডস এন্ড বিজ টক' ক্যাম্পেইন হল একটি বর্ণময় কর্মসূচি যা কিশোর কিশোরী ও তরুণদের মধ্যে মজাদার এবং ইতিবাচক পদ্ধতিতে সঙ্গীত, শিল্পকলার মাধ্যমে উপভোগ করতে সাহায্য করবে। টিবিবিটি অ্যানথেম এই বিষয়টি জানাতে চায় যে বড় হওয়া মজাদার ও নিরাপদ হতে পারে এবং একটি ইতিবাচক বার্তা প্রেরণ করতে পারে যা শক্তি, সুরক্ষা ও আনন্দ সম্পর্কে জ্ঞানের গুরুত্বকে উপলব্ধি করাতে পারে। এই ক্যাম্পেইনের মাধ্যমে আমরা সচেতনতা বাড়াতে এবং কিশোর-কিশোরীদের মধ্যে মানসিকতা তৈরি করতে চাই এবং উত্তর-পূর্ব ভারতের তরুণ এলজিবিটিকিউআই সম্প্রদায়কে অন্তর্ভুক্তি'র মাধ্যমে তাদের সমাজের সঙ্গে যুক্ত করার কাজে উৎসাহিত করতে চাই।'



প্ল্যান ইন্ডিয়া'র এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর মি. মহম্মদ আসিফ বলেন, 'প্ল্যান ইন্ডিয়া ভারতের বিভিন্ন অঞ্চলে সমস্ত শিশু, বয়ঃসন্ধির কিশোরী এবং যুবতী মহিলা ও পুরুষদের মধ্যে যৌনজীবনের উন্নয়ন ও প্রজনন স্বাস্থ্য পরিষেবার বিষয়ে গত দুই দশকেরও বেশি সময় ধরে কাজ করে আসছে। ভারত সরকারের রাষ্ট্রীয় কিশোর স্বাস্থ্য কার্যক্রম (আর কে এস কে)-এর সঙ্গে আমরা একযোগে কাজ করে আসছি এবং আমরা বিশ্বাস করি যে বয়সন্ধির কিশোর কিশোরী ও যুবক যুবতীদের অবশ্যই তাদের সামগ্রিক উন্নয়নের জন্য সক্ষম ও সমৃদ্ধ করে তোলা প্রয়োজন। তাদের যৌন জীবন ও প্রজনন বিষয়ে অধিকার সম্পর্কে সচেতন হওয়া উচিত। এ বিষয়ে তাদের কাছে সঠিক তথ্য সরবরাহ করে তাদের সুস্থ জীবন যাপনে সাহায্য করতে হবে। হিংসা, বৈষম্য ও অপব্যবহার থেকে তাদের মুক্ত রাখা প্রয়োজন। আমি এটা জানতে পেরে আনন্দিত যে 'দ্য বার্ডস অ্যান্ড বিজ টক' প্রজেক্টটি লক্ষ লক্ষ কিশোর কিশোরী ও তরুণ তরুণীদের যৌন জীবন ও প্রজনন স্বাস্থ্য পরিষেবা এবং এই বিষয়ে তাদের অধিকারগুলি সম্পর্কে সচেতনতা তৈরি ও এক্সেস সহ বিভিন্ন বিষয়ে সক্ষম করার বিষয়ে সুনিশ্চিত করতে পারবে, যা আমাদের দেশে লিঙ্গ সমতাকে জোরদার করার ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ হতে পারে।'

 

গানের কণ্ঠস্বর সফলভাবে উত্তর-পূর্বের স্বাদ নিয়ে এসেছে। শিল্পীদের মধ্যে রয়েছেন পিঙ্ক-এর মত মুভিতে উল্লেখযোগ্য পারফর্মার অ্যান্ডরিয়া তারিয়াং। তিনি 2015 সালে কালম ফেষ্টিভেল, 2016, 2017, 2019 সালে বাকার্ডি এনএইচ7 উইকএন্ডার সহ বেশকিছু সাংস্কৃতিক উৎসবের মঞ্চে পারফর্ম করেছিলেন। এছাড়াও রয়েছেন নাগাল্যান্ডের পারফর্মার ও ফ্যাশন স্টাইলিস্ট আর্সেনাল জামির। তিনি একজন ডিজাইনার ও ক্রিয়েটিভ ডিরেক্টরও। তিনি তার পোশাকের ব্র্যান্ড, 'ওটসু ক্লোদিং কো'এর জন্য বিখ্যাত। রয়েছেন রাহুল রাজখোয়া। ভি এইচ1 এবং রোলিং স্টোন-এর গায়ক তথা গীতিকার হিসেবে বিখ্যাত তিনি। ইতিমধ্যে ভারতে ও বিদেশের 35টি শহরে ভ্রমণ করেছেন তিনি। রাহুল শিল্পী হিসেবে উত্তর-পূর্ব ভারতের সামাজিক ও পরিবেশগত বিষয় নিয়ে তার বেশিরভাগ গান তৈরি করেছেন।

 

সময়ের শুরু থেকেই সঙ্গীত যোগাযোগের সবচেয়ে বড় মাধ্যম এবং টিবিবিটি থিম সং এই উদ্যোগের একটি শক্তিশালী ভিত্তি হিসেবে সাহায্য করছে। সুস্থ বিকাশ এবং সুস্থতাকে সুনিশ্চিত করার জন্য শক্তি, সুরক্ষা ও আনন্দ সম্পর্কে সঠিক বার্তাটি শেয়ার করার জন্য এই উদ্যোগ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে। এই সঙ্গীতটি অন্তর্ভুক্তির বিষয়ে প্রচারে প্রবলভাবে সাহায্য করবে এবং কিশোর-কিশোরীদের সঠিক পছন্দের দিকে এগিয়ে নিয়ে যেতে উৎসাহিত করবে।

 

এই ক্যাম্পেইনটি ফেসবুক, টুইটার ও ইনস্টাগ্রামে প্রকাশিত হবে যা সাধারণ মানুষের কাছে পৌঁছাতে সাহায্য করবে ও সঠিক মানুষের মধ্যে এই বিষয়ে প্রভাব বিস্তারের ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে। এই ক্যাম্পেইনটি এমন একটি ডিজিটাল কনটেন্ট-এর সিরিজের অন্তর্ভুক্ত হবে যা এই ইস্যুটির পুনরাবৃত্তি করার বিষয়ে মনোনিবেশ করতে সাহায্য করবে এবং বৃহত্তর জনসমষ্টির কাছে পৌঁছাতে সাহায্য করবে। 

No comments:

Post a Comment

Post Bottom Ad

Responsive Ads Here

Pages