এ ২৭ শতাংশ বৃদ্ধি : সি বি আর ই রিয়েলিটি বাইটস - Songoti

এ ২৭ শতাংশ বৃদ্ধি : সি বি আর ই রিয়েলিটি বাইটস

Share This
সঙ্গতি, নিউ দিল্লী: সি বি আর ই সাউথ এশিয়া প্রাঃ লিঃ, ভারতের অগ্রণী রিয়েল এস্টেট ফার্ম, আজকে দেশীয় শিল্পে
বিনিয়োগের প্রবণতার উপর বিস্তারিত প্রাপ্ত তথ্য প্রকাশ করেছে এবং এই শিল্পক্ষেত্রে তহবিলের অন্তঃপ্রবাহের উপর উল্লম্ব-ভিত্তিক ব্রেক-আপ প্রদান করেছে। সি বি আর ই - এর এই প্রাপ্ত তথ্যে উল্লেখ করা হয়েছে যে ২০১৯ সালে রিয়েল এস্টেট শিল্পে বিনিয়োগের ক্ষেত্রে তহবিলের ২৭ শতাংশ অন্তঃপ্রবাহ রেকর্ড করেছে যার আনুমানিক অর্থরাশি সকল মূল বিভাগে আনুমানিক ৬ বিলিয়ন মার্কিন ডলার। প্রাপ্ত তথ্যে আরও উল্লেখ করা হয়েছে যে বিনিয়োগের কার্যকলাপগুলির মধ্যে ‘অফিস সেক্টর’ এবং ‘ডেভেলপমেন্ট সাইট/ল্যান্ড’-এ বেশি বৃদ্ধি দেখা গেছে যার মধ্যে প্রতিটি ক্ষেত্রে প্রায় তহবিলের ৪০ শতাংশ অন্তঃপ্রবাহ অন্তর্ভুক্ত। এর পরে হোটেল ক্ষেত্রে বিনিয়োগে ১১ শতাংশ -এর বৃদ্ধি দেখা গেছে। ‘ডেভেলপমেন্ট সাইট/ল্যান্ড’-এ ২০১৮ -এর সালের তুলনায় ২০১৯ সালে বিনিয়োগ ৫ শতাংশ বৃদ্ধি পেতে দেখা গেছে। হোটেলের ক্ষেত্রে মোট বিনিয়োগ ২০১৮ সালের তুলনায় ১০ শতাংশ বৃদ্ধি পেতে দেখা গেছে। সি বি আর ই - এর ভারত, দক্ষিণপূর্ব এশিয়া, মধ্যপ্রাচ্য এবং অ্যাফ্রিকার সি ই ও মিঃ আয়ুষ্মান ম্যাগাজিন, বলেছেন “রিয়েল এস্টেট ক্ষেত্রে স্বাস্থ্যকর বিনিয়োগ সম্পর্কিত কার্যকলাপ হল এর কর্মক্ষমতা এবং স্থিতিস্থাপকতার প্রমাণ। এই শিল্পক্ষেত্র আরও বেশি সংগঠিত, স্বচ্ছ এবং লাভজনক হওয়ার সাথে সাথে এই ক্ষেত্র সারা বিশ্বের এবং দেশীয় বড় বড় বিনিয়োগকারীদের আকর্ষণ করতে থাকবে। মার্কেটে লিক্যুইডিটি বৃদ্ধি করার জন্য সরকারের দ্বারা নেওয়া পদক্ষেপগুলিও বিনিয়োগকারীদের আত্মবিশ্বাস বৃদ্ধি করতে ভাল কাজ করেছে।”
সি বি আর ই সাউথ এশিয়া প্রাঃ লিঃ-এর ভারতের ক্যাপিটাল মার্কেটের MD ও যৌথ প্রধান, মিঃ গৌরব কুমার ও মিঃ নিখিল ভাটিয়া আরও বলেছেন, “যে সকল প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীরা অফিস, রিটেল, ওয়্যারহাউজিং এবং হসপিটালিটিতে সুযোগ খুঁজছেন তাদের জন্য ভারত একটি শক্তিশালী আঞ্চলিক হাব হিসেবে উঠে এসেছে। জমি পর্যায়ে উল্লেখযোগ্য পরিমাণে বিদেশি পুঁজি নিয়োগ হওয়ায় এই বিষয়টি আরও মজবুতভাবে প্রমাণিত হয়েছে। সরকার শক্ত হাতে COVID-19 সামলানোর ফলে আমরা আশা করি যে এই অঞ্চলে ভারত আপেক্ষিকভাবে আরও ভাল জায়গা হয়ে উঠবে।”

সি বি আর ই হাইলাইটস
 ২০১৮ সালে হওয়া ৪.৭৬ মার্কিন ডলার বিনিয়োগের তুলনায় ২০১৯ সালে মোট বিনিয়োগ ২৭% বৃদ্ধি পেয়েছে হয়েছে ৬.০৬ বিলিয়ন মার্কিন ডলার
 অফিস এবং জমি সংক্রান্ত ডিলগুলি বিনিয়োগের কার্যকলাপের মধ্যে প্রধান্য পেয়েছে এবং এই দুটি ক্ষেত্রের প্রতিটিতে মোট লেনদেনের ৪০% দেখা গেছে
 মূলধনের অন্তঃপ্রবাহের বেশিরভাগ অংশ বিদেশী বিনিয়োগকারীদের থেকে এসেছে যার শেয়ার হল প্রায় ৬৫%
 ২০১৯ সালে মূল যে শিল্পক্ষেত্রগুলি বিনিয়োগ আকর্ষণ করেছে সেগুলি হল – অফিস (৩৯%), ডেভেলপমেন্ট সাইট/ল্যান্ড (৩৯%), হোটেল (১১%)
 মূল গেটওয়ে শহরগুলির মধ্যে বিনিয়োগের ক্ষেত্রে প্রথম সারিতে আছে মুম্বাই, ন্যাশনাল ক্যাপিটাল রিজিয়ন, ব্যাঙ্গালোর ও হায়দ্রাবাদ।

প্রাপ্ত বিনিয়োগের তুলনা করতে গিয়ে প্রাপ্ত তথ্য আরও উল্লেখ করেছে যে এই শিল্পক্ষেত্র ২০১৮ সালে মোট ৪.৮ বিলিয়ন মার্কিন ডলার বিনিয়োগ লাভ করেছিল। শহর-ভিত্তিক বিনিয়োগ কার্যকলাপগুলির শীর্ষস্থানে রয়েছে যথাক্রমে মুম্বাই, ন্যাশনাল ক্যাপিটাল রিজিয়ন (NCR), ব্যাঙ্গালোর এবং হায়দ্রাবাদ। সকল মূল বিভাগগুলিতে বিনিয়োগ কার্যকলাপের ক্ষেত্রে শীর্ষস্থানে রয়েছেন বিদেশী বিনিয়োগকারীরা, তারা ৬৫ শতাংশ অবদান রেখেছে। বিভিন্ন রিয়েল এস্টেট প্রোজেক্টে দেশীয় বিনিয়োগকারীদের মোট বিনিয়োগের পরিমাণ হল ৩৫ শতাংশ।

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

Post Bottom Ad

Responsive Ads Here

Pages