কোটি টাকার সাহিত্যিক প্রয়াত - Songoti

DEBI SAMMAN ADVERTISEMENT

কোটি টাকার সাহিত্যিক প্রয়াত

Share This
চন্দ্রশেখর ভট্টাচার্য, কলকাতাঃ সবচেয়ে বেশি মূল্যের পুরস্কার বিজেতা রমাপদ চৌধুরী (৯৬) আজ প্রয়াত হলেন। আইআইপিএম তাঁকে দিয়েছিল সেই পুরস্কার। অর্থমূল্য ছিল এক কোটি টাকা। নোবেল পুরস্কারের সমতুল ছিল অর্থমূল্যে। আমি তখন ওই সংস্থার সংবাদ পত্রের কলকাতা ব্যুরোর প্রধান। কলকাতায় পার্ক হোটেলে বিরাট অনুষ্ঠান করে সেই পুরস্কার দেওয়া হয়েছিল। রবিবার দক্ষিণ কলকাতার একটি বেসরকারি হাসপাতালে বিকেল ৬-৩৫ মিনিটে তিনি প্রয়াত হন। দীর্ঘ দিন ধরে শ্বাসকষ্টে ভুগছিলেন। হার্টের 
রমাপদ চৌধুরী
সমস্যায় ২০ জুলাই তিনি হাসপাতালে ভর্তি হন। খড়্গপুর শহরে ১৯২২ সালের ২৮ ডিসেম্বর জন্ম রমাপদ চৌধুরীর। খড়্গপুর স্কুলের পাঠ, তারপর প্রেসিডেন্সি কলেজে। ভর্তি হন এবং পরে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সাম্মানিক ইংরেজি সাহিত্যে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জন করেন। বন্ধুদের উৎসাহে সাহিত্য রচনা শুরু ছাত্রাবস্থায়। তাঁর লেখা প্রথম ছোট গল্প প্রকাশের সময় বয়স মাত্র ২৫। তারপর স্নাতকোত্তর রমাপদ যোগ দেন আনন্দবাজার পত্রিকা গোষ্ঠীতে। কালক্রমে তিনি ওই পত্রিকার সহযোগী সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেন। বহু বছর তিনি 'রবিবাসরীয়' বিভাগের সম্পাদক ছিলেন। তাঁর শেষ লেখা, হারিয়ে যাওয়া খাতা, দেশ পত্রিকায় ধারাবাহিক হিসাবে প্রকাশ পায়, যা তাঁর আত্মজীবনী ‘হারিয়ে-যাওয়া খাতা জীবনের সময়সারণী বলা যায়।

১৯৫৪ সালে প্রকাশিত হয় তাঁর প্রথম উপন্যাস 'প্রথম প্রহর'। তার আগেই দু'টি ছোটগল্প সংকলন প্রকাশ করেছেন। প্রকাশিত হয়। ভাল সাড়াও পেয়েছেন পাঠকদের।।
তাঁর রচিত উপন্যাসের সংখ্যা অর্ধশতক। কিন্তু প্রকৃত জনপ্রিয়তা পেলেন দেশ পত্রিকায় ধারাবাহিক উপন্যাস 'বনপলাশীর পদাবলী' তে। ঞ্চাশের দশকে এটি প্রকাশ পায়। ১৯৬৩ সালে আনন্দ পুরস্কার পান। ১৯৭১ সালে পশ্চিমবঙ্গ সরকারের রবীন্দ্র পুরস্কার 'পান 'এখনই' উপন্যাসের জন্য। সাহিত্য একাদেমি পেয়েছেন ১৯৮৮তে 'বাড়ি বদলে যায়' উপন্যাসের জন্য।।
২০১১ সালে ইন্ডিয়ান ইনস্টিটিউট অফ প্ল্যানিং অ্যান্ড ম্যানেজমেন্ট রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর স্মারক আন্তর্জাতিক পুরস্কার চালু করলে প্রথম বছর 'বনপলাশী পদাবলী' উপন্যাসের জন্য রমাপদ চৌধুরীকে ওই পুরস্কারে ভূষিত করা হয়। এরই অর্থমূল্য ছিল এক কোটি টাকা। রমাপদ চৌধুরীর লেখা একাধিক গল্প ও উপন্যাসের ভিত্তিতে তৈরি হয়েছে বেশ কিছু জনপ্রিয় বাংলা চলচ্চিত্র।। এর মধ্যে 'দ্বীপের নাম টিয়ারং', 'এখনই', 'পিকনিক', 'বনপলাশীর পদাবলী', 'যে যেখানে দাঁড়িয়ে', 'খারিজ', বীজ কাহিনি অবলম্বনে 'একদিন হঠাত্‍' এবং 'অভিমন্যু' উপন্যাস অবলম্বনে তপন সিংহ পরিচালিত হিন্দি ছবি 'এক ডক্টর কি মওত' উল্লেখযোগ্য। যাঁর কাহিনী নিয়ে এত চলচ্চিত্র, তাকেও সেলুলয়েডে ধরে রেখেছে সাহিত্য আকাদেমি। সেই মূল্যবান ছবিটির পরিচালক রাজা মিত্র।।

No comments:

Post a Comment


Debi Samman

Pages