শারীরিক নয়, বৌদ্ধিক সৌন্দর্যই তুলে ধরবে ‘বেঙ্গল কুইন’ - Songoti

DEBI SAMMAN ADVERTISEMENT

শারীরিক নয়, বৌদ্ধিক সৌন্দর্যই তুলে ধরবে ‘বেঙ্গল কুইন’

Share This


দেবপ্রিয় মণ্ডল, কলকাতাঃ সাম্প্রতিক অতীতে শহরে হয়েছে একাধিক বিউটি কনটেস্ট। তবে স্বতন্ত্রতা দেখানোর আশা নিয়ে আসছে ‘বেঙ্গল কুইন ২০১৯’। প্রেস ক্লাবে কনফারেন্স করে উদ্যোক্তারা জানালেন একথা। সাধারণত বিউটি কনটেস্টগুলিতে প্রতিযোগীদের বয়স, শারীরিক গুণাবলী ইত্যাদি বিচার্য্য বিষয়ে রাখা হয়। কিন্তু একেবারে বিপরীত পথে হেঁটেছেন বেঙ্গল কুইনের উদ্যোক্তারা। শারীরিক সৌন্দর্যের বদলে বৌদ্ধিক বিকাশকেই তারা মাপকাঠি বলে গণ্য করেছেন। বেঙ্গল কুইনের পরিচালক মডেল ও অভিনেতা মৈনাক ব্যানার্জী বলেন, “চেহারা সৌন্দর্য্যের প্রেক্ষিতে অবশ্যই গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। তবে মূল বিষয় হল মানবতা এবং প্রাণীজগতের প্রতি বুদ্ধি, করুণা এবং শক্তি যা অন্যদের মধ্যে অনুপ্রেরণার সঞ্চার করবে”। সম্প্রতি ২৩ বছর পর ইন্ডাস্ট্রিতে প্রত্যাবর্তনের জন্য শিরোনামে আসা সাবেক মডেল তুহিনা পাণ্ডে পিজেন্টের গ্রুমিং সেশনগুলির দায়িত্বে আছেন। সমস্ত পোশাকের ডিজাইন করেছেন ইন্দো-ওয়েস্টার্ন শাড়ির স্রষ্টা ফ্যাশন সম্রাজ্ঞী ইরানি মিত্র। পিজেন্টটি টাস্কভিত্তিক হবে যেখানে প্রতিটি অংশগ্রহণকারী দল কিছু কাজ পাবেন যাতে তাদের দলগত মনোভাব এবং সামাজিক উন্নয়নের জন্য পরিকল্পনা উভয়ই পরীক্ষা করা যায়। সমস্ত প্রার্থীকে সেমিফাইনালের আগে দিতে হবে অ্যাসিড পরীক্ষা যাতে ৫০ জন অংশগ্রহণকারীর মধ্যে সেরা প্রতিযোগীকে খুঁজে পাওয়া সহজ হয়। মৈনাকবাবু অংশগ্রহণকারীদের সংখ্যার কথা বলতে গিয়ে বলেন, “আমরা প্রথমবার এই জাতীয় পিজেন্টের আয়োজন করছি এবং সত্যিই অপ্রত্যাশিত ভাবে অসংখ্য মানুষ এতে সাড়া দিয়েছেন। ৫০ জন অংশগ্রহণকারীকে নেওয়ার আগে আমাদের কঠোর তদন্ত করতে হয়েছিল। তাই আমরা আশা করছি যে এই প্রথম দলগত মনোভাবের স্বাদ সহ একটি টাস্ক ভিত্তিক পদ্ধতির সাথে সৌন্দর্য প্রদর্শিত হবে যা প্রতিযোগীদের মধ্যে সহনশক্তি এবং নেতৃত্বের গুণাবলী বাড়িয়ে তুলবে”। পশুপ্রেমিক মৈনাক মনে করেন পশুপ্রেম সম্পর্কিত কোনও কাজও বিচারের মাপকাঠি হতে পারে। আগামী ২৮ সেপ্টেম্বর শহরে অনুষ্ঠিত হতে চলেছে এই বিউটি কনটেস্ট।

No comments:

Post a Comment


Debi Samman

Pages