ভালবাসার রাগ || সুভাষ কর || সাহিত্যগ্রাফি - Songoti

DEBI SAMMAN ADVERTISEMENT

ভালবাসার রাগ || সুভাষ কর || সাহিত্যগ্রাফি

Share This

সুদীপ্ত তখনো ট্যুইশনবাড়ীর বাইরে দাঁড়িয়ে পায়চারী করছিল। ছাত্রের আপিস-ফেরৎ বাবা বাড়ীর গেটে ঢোকার সময় তাকে দেখে অবাক !
---  কি হে, খোকা বাড়ীতে নেই?
---  আছে, হোমওয়ার্ক তৈরী করছে।
---  বুঝেছি, হোমওয়ার্ক রেডি না থাকায় রাগ করে উঠে এসেছ? (হঠাৎ সুদীপ্তর হাত ধরে) ভেতরে চল বাবা, আজ খোকাকে দেখাচ্ছি মজা।
---  কোন লাভ নেই; আমি অনেকবার বললাম; সুদীপ্ত আসবে না (বাড়ীর ভেতর থেকে বেরিয়ে আসা ছাত্রের মায়ের গলা)। ভেতরে সুদীপ্তের চা-পরোটাও ঠাণ্ডা হচ্ছে।
---  কিন্তু কি হয়েছে বল তো?
---  কি আবার হবে, তোমার গুণধর ছেলে আজো হোমটাস্ক করেনি। সুদীপ্ত বলছে, আজ নিয়ে পরপর তিনদিন হ'ল একই হোমওয়ার্কের নাকি এই হাল ! কি লজ্জার কথা বল তো ! তাই সুদীপ্ত আজ আর কারো কথাই শুনবে না। খোকাকে আগে লেখা দেখাতে হবে, তারপরেই কিছু মুখে দেয়ার প্রশ্ন। তাও সেই কতক্ষণ হয়ে গেল!
---  লেখা তৈরী হয়ে গেছে স্যার (মায়ের পেছনে আসা মাথানীচু খোকনের গম্ভীর কন্ঠস্বর)।
---  তাই? সাতদিন আগে দেয়া টাস্ক এখন শেষ করে সত্যিই আমায় কৃতার্থ করেছ। এদিকে তোমার জন্যে তোমার মা-বাবারও লজ্জার শেষ নেই !
--- এমনটি আর কক্ষনো হবে না স্যার। এবার প্লীজ্ , ভেতরে এসো !
---  তাই? ঠিক বলছ? নাকি এভাবেই ঘটা করে ছাত্র পড়াতে এসে দিনের পর দিন শুধু চা-টিফিন খেয়ে ফিরে যাবার পর্ব চলতে থাকবে?
ফর্সা খোকন লজ্জায় লাল হয়ে যায়; তার মুখে আর নতুন কোন কথা বেরোয় না। শুধু করুণ সুরে রিপিট করে, "প্লীজ স্যার !"
সুদীপ্ত পড়ার টেবিলে ফিরে গেল। দেখল- গুটি গুটি হাতের লেখায় কপিবুকে সদ্য করা হোম টাস্ক যেন ঝকঝক করছে। চোখ বুলিয়ে দেখল; না, কোথাও এতটুকু ভুলচুক নেই; ঠিক যেভাবে সে উত্তর তৈরী করার নির্দেশ দিয়ে রেখেছে, একেবারেই সেই নিয়ম মেনে একশ ভাগ শুদ্ধ উত্তর। 'ভেরি গুড' লিখে পরের চাপ্টার ধরতে যাবে, এমন সময় খোকন মিনতি জানায়-
--- আগে খাবারটা খেয়ে নাও স্যার, মা আবার গরম করে এনেছে। আমি কথা দিচ্ছি, আর কখনো হোমটাস্ক নিয়ে এভাবে তোমাকে দুঃখ দেব না। রোজের টাস্ক রোজ তৈরী করব।

সুদীপ্ত লক্ষ্য করে দুরন্ত খোকনের চোখের কোণে জলের ফোঁটা চিক চিক করছে। ছেলেটা নিজের ভুলটা সত্যিই ঠিক ঠিক বুঝতে পেরেছে। চায়ের কাপে চুমুক দেয় সুদীপ্ত। "স্যার পরোটা খাবে না?" বিনা কোন ধমকেই খোকন যেন আজ বেশ ভীতও- পাছে স্যারের রাগ পুরোটা না কমে। মুচকি হেসে পরোটা মুখে দেয় সুদীপ্ত। আজ সে অনেকটাই তৃপ্ত! ভালবাসার কৃত্রিম গান্ধীবাদী রাগ আজ বুঝি ফল দিতে শুরু করেছে !

No comments:

Post a Comment


Debi Samman

Pages