আইটিসি লিমিটেড এর উপস্থাপনা ‘৫ স্টার কিচেন আইটিসি শেফ’স স্পেশাল’ - Songoti

আইটিসি লিমিটেড এর উপস্থাপনা ‘৫ স্টার কিচেন আইটিসি শেফ’স স্পেশাল’

Share This
কলকাতাঃ স্টার নেটওয়ার্কের দর্শকদের এই ধরণের প্রথম রান্নার অভিজ্ঞতা দিতে আইটিসি ফুডস শেয়ার করছে কয়েকটি সহজে করার মত আঞ্চলিক রেসিপি| আইটিসি হোটেলের একটি উৎসাহী কিচেন ব্রিগেড থেকে এই রেসিপিগুলি পাওয়া গেছে| বাড়িতে থাকুন ঘোষনার পরে দেখাযাচ্ছে অনেক বাড়িতেই শখের রাধুনীরা নানা রকমের ডিশ নিখুঁত করার চেষ্টা এবং পরীক্ষানিরীক্ষা করছেন| তাদের প্রচেষ্টার তারিফ করে, ভারতে ভোজ্যসামগ্রী ব্যবসায় দ্রুততম হারে বৃদ্ধিশীল একটি কোম্পানি, আইটিসি ফুডস, তার ‘আশীর্বাদ’এর মতন জনপ্রিয় ব্র্যান্ডের চালু বাজারও উপভোক্তাদের চাহিদার দ্বারা চালিত হয়ে দর্শকদের জন্যে উপস্থিত করছে ভারতীয় রুচির উপাদেয় স্বাদের উপরে প্রস্তুতকরা এই ৫ স্টার কিচেন আইটিসি শেফ’স স্পেশাল প্রোগ্রাম|

২৩শে মে অনুষ্ঠানটির প্রিমিয়ার হয়েছে এবং প্রতি শনি ও রবিবার সকাল ১১ টায় দেখানো হবে, আগামী ছয় সপ্তাহের জন্য| ১২ পর্বের এই ধারাবাহিকটি হটস্টার ও স্টার টিভি নেটওয়ার্কের ৩৩টি চ্যানেলে বাংলা, হিন্দী, মারাঠী, তামিল, তেলেগু, কন্নড় এবং মালয়ালম, এই ৭টি ভাষাতে প্রচারিত হবে|

প্রোমো লিঙ্ক : https://www.youtube.com/watch?v=x38WCNp_1JU

রাজস্থানী বাফলা বাটি, কোঙ্কনি ডোডাক ধোসা, বাংলার ছানার পায়েস, পটলের দোর্মার মতন আনন্দদায়ক ঐতিহ্যবাহী খাবার থেকে আশীর্বাদ মাল্টি মিলেট পিৎজার মতন অপ্রচলিত সৃজন, সামারআমারান্থ সহ ইপ্পী ট্রাইকালার পাস্তা মসালা ও কিংওয়েস্টার মাশরুম, সালসাও ম্যাঙ্গোডিপ সহ ম্যাড এঙ্গেলস নাচো, বি-ন্যাচারাল আমপাপড় এবং গুড়কুলফি ক্যান্ডি অথবা মিষ্টি-পিপাসাতৃপ্ত করার একটি ডার্ক ফ্যান্টাসী শেক, সবইআমাদের দেশের সমৃদ্ধ রন্ধনশৈলীর ঐতিহ্য প্রদর্শন করতে ১২ টি আইটিসি হোটেলের শেফরা, তাদেরঅসাধারণ কুশলতা সহ প্রস্তত করেছেন| রয়ালকিচেন্স অফ রাজস্থান, ডেসার্টক্যাপিটাল অফ কলকাতা থেকে, আইটিসিফুডস এর, আশীর্বাদ, ইপ্পী!, সানফিয়েস্ত, বি-ন্যাচারাল ইত্যাদির মতন বিশ্ব মানের/খানদানীভোজ্য সামগ্রী থেকে সেরা পছন্দের উপকরণের কয়েকটির ব্যবহারে প্রাচ্য রান্নার মনোরম সুগন্ধ অবধি প্রতিটি পর্ব একটি সমৃদ্ধশীল ঐতিহ্যগত এবং সমসাময়িক আহার্যের দৃশ্যপট এর জাদুমন্ত্র উচ্চারণ করবে| এরঅতিরিক্ত, প্রতিটিপর্বে একজন অতিথি শেফ থাকবেন যিনি স্ক্রীন শেয়ার করবেন আইটিসি হোটেলের শেফ এবং জার্নালিস্ট-তথা অ্যাঙ্কর ধীরজ জুনেজার সাথে, যিনি আলাপচারিতায় মজাদার চমক আনেন, যেহেতুশেফরা খাবার পছন্দ এবং রান্নায় ভারতীয় সংস্কৃতির প্রভাব নিয়ে কথা বলার সময়ে তিনি তাদের সাথেও মতবিনিময় করেন

বিএআরসি’র সর্বশেষ ডেটা অনুসারে, কোভিড পর্যায়ের আগের তুলনায় নতুন বিষয়বস্তুর অভাব থাকা সত্ত্বেও ভারত এই সময়ে টেলিভিশন দর্শকদের সংখ্যায় ২৪% এর একটা বৃদ্ধির সাক্ষী| উপরন্তু, চলাফেরায় বিধিনিষেধ, খাবারেরস্বাস্থ্যবিধিসম্মত মানের প্রতি উপভোক্তার সন্দেহ, আরসেইসঙ্গে রান্না শেখার একটি অন্তর্নিহিত বাসনা মিলেমিশে, সেখানেগুগল ট্রেন্ডস ডেটা অনুসারে ইউটিউবে সামগ্রিকভাবে রন্ধন প্রণালী সম্পর্কিত সার্চিং ২০% বৃদ্ধি পেয়েছে বলে জানা গেছে| এইবলিষ্ঠ অন্তর্দৃষ্টি, উভয় কোম্পানিকেই উপভোক্তাদের জন্য মিলিতভাবে নতুন বিষয়বস্তু প্রস্তুত করার একটি সুযোগ করে দিয়েছে, যাবর্তমান সময়ে প্রাসঙ্গিক ও অর্থপূর্ণ|

উদ্যোগ প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে, আইটিসি হোটেলগুলির মুখপাত্র বলেছেন, “আমাদের নামকরা শেফদের দিয়ে সহজভাবে রন্ধনপ্রণালী ব্যাখ্যা করানোর মাধ্যমে একটা উদ্দেশ্যের সংস্কৃতি ও ঐতিহ্য উপস্থাপিত করার একটি দায়িত্বশীল বিলাসবহুল তত্ত্বের সাথে এই অনুষ্ঠানের ধারণা একই সারিতে অবস্থান করছে| খাদ্য একটি সার্বজনীন ভাষা যা সারা বিশ্বে আমাদের প্রত্যেকের সাথে সম্পর্কিত| এই অভিজ্ঞতা শেয়ার করাটি হলো তাঁদের কাছে পৌঁছানোর জন্যে আমাদের একটি নম্র প্রচেষ্টা, যাঁরা বাড়িতে আছেন এবং নিজেদের কাছের ও প্রিয়জনের জীবনে একটু আনন্দ আনতে তাঁরা নিজেরা রাঁধতে পারেন এমন নানা ধরণের রেসিপি খুঁজছেন”|

উদ্যোগ প্রসঙ্গে বিশদ ব্যাখ্যা করে, আইটিসি ফুডস মুখপাত্র বলেছেন, “বর্তমান সময়ে যখন লোকেরা আগের চেয়ে আরও বেশি সময় টেলিভিশনের সামনে বসে কাটাচ্ছেন এবং প্রতিদিন নতুন নতুন বিষয়বস্তু খুঁজছেন, তখন পরিস্থিতির বদল ঘটানো এবং তাদের জন্যে নতুন ও প্রাসঙ্গিক বিষয়বস্তু তৈরীতে অংশগ্রহণ করা আমাদের জন্যে প্রাসঙ্গিক বলে আমরা মনে করেছি| সারা বিশ্বের লোকে বাইরে খাওয়ার থেকে বাড়িতে-প্রস্তুত খাবার খাওয়ার দিকে সরে আসছেন এবং তাঁদের ঐ অবস্থান্তর ঘটানোর সময়ে, তাঁরা হয় নিজের ভিতরে শেফ খুঁজছেন, নতুন একটা ডিশ বা রান্না খাচ্ছেন অথবা নতুন একটি রন্ধন প্রণালী শিখতে চাইছেন| যখন আমরা, এই 5 স্টার কিচেন আইটিসি শেফ’স স্পেশাল মঞ্চটি বানানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম, তখন এটা প্রতিটি ভারতীয় রান্নাঘরে পৌঁছানোর, আমাদের শেফদের অভিজ্ঞতা ও দক্ষতা শেয়ার করার এবং একদা-আদৃত ও সমসাময়িক সৃজন সহ ডিনার টেবিলের শোভা বৃদ্ধিতে শ্রোতাদের সাহায্য করার জন্যেই করা হয়েছিল”|

“আমাদের দর্শকদের চাহিদা মাপতে আমাদের সক্ষমতায় আমরা গর্ব অনুভব করি এবং সেই বিষয়বস্তুতে মনোনিবেশ করি যা দর্শকদের মনোরঞ্জন করে আর তাদের মুগ্ধ করে রাখে| এই রকম একটি সময়ে, যখন প্রত্যেকেই তাদের নিজেদের বাড়ির ভিতরে আটকে পড়েছেন, আমরা স্টার প্লাসের এই অনন্য ধারণাটি উপস্থাপিত করতে খুবই অধীর| এই ধরণের অন্যতম একটি কুকিং শো ফরম্যাটের সাথে আমাদের দর্শকরা তাদের রান্নাঘরটিকে ৫ স্টার কিচেনে বদলে দিতে সক্ষম হবেন” বলছেন স্টার ইন্ডিয়া নেটওয়ার্কের এক মুখপাত্র|

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

Post Bottom Ad

Responsive Ads Here

Pages