সীমিত ক্ষমতায় শারদ উৎসবে দুঃস্থ মানুষের মুখে হাসি ফোটালো কলকাতা অঙ্গীকার - Songoti

সীমিত ক্ষমতায় শারদ উৎসবে দুঃস্থ মানুষের মুখে হাসি ফোটালো কলকাতা অঙ্গীকার

Share This

গোপাল দেবনাথ : কলকাতা অঙ্গীকার তার সীমিত ক্ষমতা নিয়ে এই শারদ উৎসবে অন্তত কিছু মানুষের মুখে একটু হাসি ফোটানোর জন্য যে অন্ন-বস্ত্রের এক আগাম পরিকল্পনা করে ছিল গত সপ্তমীতে এসে বলা গেল যে সকল শুভাকাঙ্খীর সহযোগিতায় সেই পরিকল্পনার বাস্তব রূপায়নে কলকাতা অঙ্গীকার মোটামুটি সফল হলো। এই কথা সাংবাদিকদের জানালেন, কলকাতা অঙ্গীকার এর সম্পাদক গৌরব চ্যাটার্জী এবং সহকারী সম্পাদক অমরেশ রায় চৌধুরী।

আমাদের সংস্থা কলকাতা অঙ্গীকার তার পূর্বপরিকল্পনা মতো – ১) বারুইপুরের অনাথ আশ্রমের সমস্ত আবাসিকদের জন্য, ২) বাগবাজারের সারদা বিদ্যালয়ের সমস্ত শিশুদের জন্য, ৩) মূর্শিদাবাদের সহজপাঠ বিদ্যালয়ের সমস্ত শিশুদের জন্য, ৪) বাঁকুড়ার বর্ণপরিচয় বিদ্যালয়ের সমস্ত শিশুদের জন্য, ৫) বীরভূমের বিদ্যাসাগর বিদ্যাপিঠের সমস্ত ছাত্রছাত্রীর জন্য, ৬) জয়নগরের বিবেক সেবানিকেতনের সমস্ত আবাসিকদের জন্য ইতিমধ্যেই নতুন জামা-কাপড় পৌঁছে দিতে পেরেছে। শুধু শিশুদের জন্যই নয়, বাঁকুড়ার প্রত্যন্ত গ্রামের দ্বিশতাধিক গরীব বৃদ্ধবৃদ্ধার জন্য পরনের কাপড়ের বন্দোবস্ত করতেও সমর্থ হয়েছে। আর এই সবের মধ্যে হঠাৎ করে এসে পরা বন্যায়, মেদিনীপুরের বন্যাদূর্গত মানুষজনের জন্যও এপর্যন্ত দুইবার তাদের সীমিত সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন।

শুভ চতূর্থী থেকে শুরু হয়েছে এই পরিকল্পনার দ্বিতীয় ভাগের রূপায়ন। শুভ চতূর্থীতে বাঁকুড়ার কালিদাসপুর গ্রামে সমস্ত শিশুদের সঙ্গে বহু বৃদ্ধবৃদ্ধার জন্যও আহারের আয়োজন করে ছিলেন।  শুভ পঞ্চমীতে বাগনানের স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা সঙ্কল্পের সঙ্গে যৌথ প্রচেষ্টায় সেখানকার ইটভাটার প্রায় ১০০ টি শিশুর হাতে কিছু খাবার আর নতুন জামা তুলে দেওয়া হয়েছিল। শুভ ষষ্ঠীতে বাগবাজারের সারদা প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রীর জন্য ছিল কলকাতার কিছু প্রতিমা দর্শনের সঙ্গে দুপুরে আহারের ব্যবস্থা। শুভ সপ্তমীতে বীরভূমের বিদ্যাসাগর বিদ্যাপিঠের সমস্ত ছাত্রছাত্রীর জন্য ছিল দুপুরে দারুন আহারের আয়োজন। পুজোর বাকি দিনগুলিও আশা অনুযায়ী  সুনির্দিষ্ট পরিকল্পনামত সুন্দর ভাবেই কেটেছে।

কলকাতা অঙ্গীকার তার সকল শুভাকাঙ্খীর কাছে কৃতজ্ঞ বলে জানালেন। একমাত্র তাদের আর্থিক-সাহায্য দান এবং নৈতিক সমর্থনই কলকাতা অঙ্গীকারকে তার পরিকল্পনার বাস্তব রূপায়নে অনুপ্রাণিত করেছে। কলকাতা অঙ্গীকার বিশ্বাস করে যে সাধারণ মানুষ ও স্বহৃদয় ব্যক্তির সাহায্য ছাড়া তাদের কোন স্বপ্নই সার্থক হবে না।

No comments:

Post a Comment

Pages