বংশীবাদক পুলিশকর্মীর সুরমূর্ছনায় বিভোর ডোভার লেন মিউজিক কনফারেন্স ২০২১ - Songoti

DEBI SAMMAN ADVERTISEMENT

বংশীবাদক পুলিশকর্মীর সুরমূর্ছনায় বিভোর ডোভার লেন মিউজিক কনফারেন্স ২০২১

Share This

 পেশায় পুলিশকর্মী বংশীবাদক ইন্দ্রজিৎ বসুর মধুর উপস্থাপনায় মুগ্ধ হলেন ডোভার লেন মিউজিক কনফারেন্সের অগণিত শ্রো্তৃবৃন্দ। এই ‘আইভি লিগ’ মিউজিক ফেস্টিভ্যালে প্রথমবার তিনি বাঁশি পরিবেশন করেন। পতদীপ এবং বসন্ত রাগের উপস্থাপনায় তবলায় তাঁকে সুযোগ্য সঙ্গত দেন উজ্জ্বল ভারতী।

পেশাগত দিক দিয়ে সরকারের এক দায়িত্বপূর্ণ পদে রয়েছেন ইন্দ্রজিৎ বাবু। পুলিশ ডিপার্টমেন্টের গুরুত্বপূর্ণ কার্যভার সামলেও দৈনন্দিন রেওয়াজে কখনও ছেদ পড়েনা।

সংস্কৃতিমনস্ক বাড়ির সদস্য হওয়ার সুবাদে ভারতীয় শাস্ত্রীয় সঙ্গীতের প্রতি আকর্ষণ তাঁর জন্ম থেকেই। স্কুলজীবন থেকেই তাঁর বাঁশি প্রশিক্ষণ শুরু হয়। সঙ্গীত শুধুমাত্র বিনোদনের অংশ নয় তাঁর কাছে অক্সিজেনের মত। সমস্ত ঘরানার সঙ্গীতের মধ্যে ভারতীয় শাস্ত্রীয় সঙ্গীতই তাঁর কাছে শ্রেষ্ঠতম। নিজের সাঙ্গীতিক প্রতিভাকে বিকশিত করার উপযুক্ত মাধ্যম হিসাবে তিনি নির্বাচন করেন বাঁশিকে।

প্রথাগতভাবে যন্ত্রশিক্ষায় পান্ডিত্য আসে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পাশ করার পরে। রবীন্দ্রভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের বংশীবাদক পন্ডিত নিখিলেশ রায় এর শিষ্য ছিলেন তিনি। প্রসিদ্ধ পন্ডিত গৌর গোস্বামীর শিষ্য ছিলেন নিখিলেশ রায়। সেই ঘরানায় তালিম নিয়েছেন ইন্দ্রজিত বসু।

বিগত দুই বছরে রাজ্যের বিভিন্ন সঙ্গীতানুষ্ঠানে কৃতিত্বের সঙ্গে বাঁশি পরিবেশন করেছেন শ্রী বসু। অংশগ্রহণ করেছেন ‘উত্তরপাড়া সঙ্গীতচক্র অ্যানুয়াল কনফারেন্স’, ‘সল্টলেক মিউজক ফেস্টিভ্যাল’, ‘দক্ষিণী মিউজিক ফেস্টিভ্যাল’, ‘চৌধুরী হাউজ মিউজিক কনফারেন্স’, ‘বঙ্গীয় সঙ্গীত পরিষদ মিউজিক ফেস্টিভ্যাল’ এবং অন্যান্য বিশিষ্ট সাঙ্গীতিক সভায়। একক পরিবেশনা ছাড়াও অন্যান্য যন্ত্রের সাথে যুগলবন্দী তেও তিনি সমান স্বচ্ছন্দ।

হিন্দুস্থানী শাস্ত্রীয় সঙ্গীতের সুরের আবেশ ছড়িয়ে দিতে আগ্রহী ইন্দ্রজিৎ বসু। যন্ত্র এবং কন্ঠসঙ্গীতে আগ্রহী সঙ্গতশিল্পীদের একত্রিত করে শাস্ত্রীয় সঙ্গীতের আসর আয়োজন করতে ইচ্ছুক তিনি। নিজ প্রচেষ্টায় তিনি ইতিমধ্যে আয়োজন করেছেন বেশ কিছু সঙ্গীত সমাবেশ। যার মধ্যে উল্লেখ্য হল দীঘা শাস্ত্রীয় সঙ্গীত ফেস্টিভ্যাল এবং নিজের মায়ের স্মৃতিরক্ষার্থে আয়োজিত স্বর্গীয় মালতী বসু মেমোরিয়াল মিউজিক কনফারেন্স ২০১৯। 

No comments:

Post a Comment


Debi Samman

Pages