শহরের প্রথম ডিজিটাল গণেশ পুজোর আজ সূচনা হলো বিধাননগরের যুবক সংঘের পুজোয় - Songoti

শহরের প্রথম ডিজিটাল গণেশ পুজোর আজ সূচনা হলো বিধাননগরের যুবক সংঘের পুজোয়

Share This
করোনা আবহে আজ শহরের প্রথম ডিজিটাল গনেশ পুজোর উদ্বোধন হলো বিধাননগরের যুবক সংঘ ক্লাবে। উদ্বোধন করলেন দমকলমন্ত্রী সুজিত বসু, বিধাননগরের মেয়র কৃষ্ণা চক্রবর্তী, ডেপুটি মেয়র বিধাননগরের তাপস চট্টোপাধ্যায় , প্রাক্তন পরিবহন মন্ত্রী মদন মিত্র ছিলেন যুবক সংঘ ক্লাবের প্রেসিডেন্ট ও স্থানীয় কাউন্সিলর অনিন্দ্য চট্টোপাধ্যায়। উদ্যোক্তাদের মতে করোনা আবহে অনেক দুর্গাপুজোর উদ্যোক্তাই হয়তো তাঁদের এই দেখানো পথ অনুসরণ করবেন। ক্লাবের ফেসবুক পেজ "Bidhannagar Ganesh Chaturthi Mahotsav"-এ আগামী ২২ অগাস্ট সরাসরি দেখা যাবে এই গনেশ পুজো। ক্লাবের তরফে নিজস্ব হাতেগোনা কিছু সদস্য ছাড়া আর কাউকে জানানো হবে না আদপে এই পুজো ঠিক কোথায় হচ্ছে। ফেসবুক পেজের মাধ্যমেই দর্শনার্থীরা পুজো দিতে পারবেন নিজের নাম গোত্র রেজিস্টার করে। সঙ্গে দিতে পারবেন প্রণামী ও করতে পারবেন হোম ডেলিভারির জন্য ভোগের বুকিং। ভোগ বিতরণ করা হবে সম্পূর্ণ বিনামূল্যে। নানীঘর নামের একটি সংস্থা এই ভোগ বিতরণ করবে।

 ভোগের প্রসাদের সঙ্গে একটি করে মাস্কও পাঠানো হবে বলে জানিয়েছেন উদ্যোক্তারা। যার বিতরণে "নির্ধন" নামের একটি সংস্থা এগিয়ে এসেছে। "আমরা যে কোনও শুভ কাজ করি গণেশ বন্দনার মাধ্যমে। আমাদের এই গনেশ পুজো শহরের সবচেয়ে পুরোনো পুজো। এগারো বছর আমরা অতিক্রান্ত করেছি। কিন্তু এই দু:সহ পরিস্থিতির সম্মুখীন হবো ভাবিনি। তবু ঠিক করলাম পুজো আমরা করবোই। জনসংযোগ সংস্থা ক্যান্ডিড কমিউনিকেশনের প্রযুক্তিগত সহযোগিতায় আমরা আজ উদ্বোধন করলাম শহরের প্রথম ডিজিটাল পুজোর। ইতিমধ্যেই দেশ বিদেশের নানা প্রান্ত থেকে আমাদের এই উদ্যোগকে স্বাগত জানানো হয়েছে," বললেন যুবক সংঘের প্রেসিডেন্ট অনিন্দ্য চট্টোপাধ্যায়। পুজোর সঙ্গেই ডিজিটাল মাধ্যমেই বিভিন্ন সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানেরও আয়োজন করেছেন উদ্যোক্তারা, যাঁদের মধ্যে উল্লেখ্য হলো গায়ক ঋষি পান্ডার অনুষ্ঠান। ইতিমধ্যেই আমেরিকার নিউ জার্সি স্থিত বাঙালি সংগঠন "সৃষ্টি" এই পুজোর সঙ্গে যুক্ত হয়েছে। "সৃষ্টি"র মাধ্যমে আমেরিকার বিভিন্ন প্রান্তে ছড়িয়ে থাকা বাঙালি সংগঠনগুলো এই পুজোর আপডেট পেতে থাকবেন। জনসংযোগ সংস্থা ক্যান্ডিড কমিউনিকেশনের লন্ডন শাখার মাধ্যমে ইতিমধ্যেই "বিলেতে বাঙালি", "ইন্ডিয়ান বেঙ্গলিস ইন ইউকে", "আড্ডা"সহ বেশ কিছু বাঙালি সংগঠন ব্রিটেনে যুবক সংঘের প্রচারে সাহায্য করেছে। এগারো বছরে পদার্পণ করা যুবক সংঘের এবারের পুজোর থিম "গৃহকোণে বিনায়ক"। কলকাতার অন্যতম পুরোনো এই গনেশ পুজোয় প্রত্যেক বছরই নতুন থিম থাকে। যেমন গতবছর থিম ছিল হাজার বছরের পুরোনো একটি গণেশ মূর্তি। অনিন্দ্য আরও জানালেন, "এই করোনাভাইরাসের জন্য আমাদের সবাইকে সরকারি সব বিধিনিষেধ মেনে চলতে হচ্ছে। সামাজিক দূরত্ব মেনে চলা, প্রতিনিয়ত স্যানিটাইজেশন করা ছাড়াও আমরা এবার প্রসাদে কোনও ফুল ব্যবহার করতে পারছি না। তবে অন্যদিক থেকে দেখতে গেলে এই ডিজিটাল ব্যবস্থাপনার ফলে আমাদের পুজো আজ বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে পৌঁছে যাচ্ছে। বিশেষ করে আমাদের ক্লাবের পরিবারের অনেক সদস্য যাঁরা বিদেশে থাকেন তাঁরা আমাদের পুজোকে সরাসরি সোশ্যাল মিডিয়ায় দেখতে পাবেন। যেটা হয়তো আগে আমাদের করে ওঠা হয়নি।"

No comments:

Post a Comment

Post Bottom Ad

Responsive Ads Here

Pages