কুমুদ সাহিত্য মেলায় সাহিত্যিক ষষ্ঠিপদ চট্টোপাধ্যায়ের হাতে সম্মানিত হলেন কবি রাজকুমার দাস - Songoti

কুমুদ সাহিত্য মেলায় সাহিত্যিক ষষ্ঠিপদ চট্টোপাধ্যায়ের হাতে সম্মানিত হলেন কবি রাজকুমার দাস

Share This
নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতাঃ ৩রা মার্চ সারাদিনব্যাপি মঙ্গলকোটের কোগ্রামে পল্লিকবি কুমুদরঞ্জন মল্লিক এর জন্মদিন উপলক্ষে কুমুদ সাহিত্য মেলা পালিত হল। এই সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন  সাহিত্য একাডেমি পুরস্কার প্রাপ্ত পান্ডব গোয়েন্দা খ্যাত সাহিত্যিক ষষ্ঠীপদ চট্টোপাধ্যায়, বাচিক শিল্পী সোনালী কাজী, প্রাক্তন  জাতীয় ভলিবল খেলোয়াড় দেব কুমার ঘোষ, অবসরপ্রাপ্ত ডেপুটি ম্যাজিস্ট্রেট মহম্মদ ইব্রাহিম, কবি ধনঞ্জয় বন্দ্যোপাধ্যায় প্রমুখ। এদিন মঞ্চে ২৬ জন সংবর্ধিত হন। প্রাবন্ধিক স্নেহাশিস চক্রবর্তী, প্রকাশক নিগমানন্দ মন্ডল, কাঁথাশিল্পী মনিরুল হক, সাহিত্যিক ফারুক আহমেদ,শিক্ষাব্রতী শফিকুল ইসলাম  প্রমুখ। এদিন মনন সাহিত্য সংগঠনের তরফে ১৫০ জন দুস্থদের বস্ত্রবিলি ও অন্নভোগ করানো হয়। সমাজসেবী সংগঠন সুসম্পর্ক এর তরফে ১০০ জন দুস্থ পড়ুয়াদের


শিক্ষাসামগ্রী বিলি করা হয়  । ডক্টর আর এন ঘোষ মেমোরিয়াল সোসাইটির তরফে ২ জন কৃতিদের আর্থিক সাহায্য করা হয়। সেইসাথে চারুচন্দ্র আর্ট সেন্টার এর পরিচালনায় পল্লিকবি কুমুদরঞ্জন মল্লিক এর উপর চিত্র আঁকা হয়। লোকসংগীত শিল্পী রফিকুল ইসলাম খান সেফ ড্রাইভ নিয়ে গান পরিবেশন করেন। রাজ্য পরিবহন দপ্তর থেকে সেফ ড্রাইভ কর্মসূচি পালনে  কুমুদ সাহিত্য মেলা কমিটি কে  প্রচারের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছিল। তা যথাযথ পালন হয় এদিন। মেলা কমিটির সম্পাদক মোল্লা জসিমউদ্দিন জানান - এদিন পল্লিকবি কুমুদরঞ্জন মল্লিক এর উপর স্মরণিকা প্রকাশ করা হয়।     পল্লী কবি কুমুদরঞ্জন মল্লিকের জন্মদিন পালন ও গুণীজন সংবর্ধনা অনুষ্ঠান দীর্ঘ দশ বছর ধরে পালন করা হচ্ছে আনুষ্ঠানিক ভাবে।কবিকে যারা ভুলতে বসেছে তাঁদের স্মরণ করিয়ে দেওয়া টাও আমাদের সকলের কর্তব্য বলে উল্লেখ করেন কমিটির সম্পাদক মোল্লা জসিম উদ্দিন।
"-বাড়ী আমার ভাঙ্গন ধরা অজয় নদের বাঁকে" কবিতার সাথে কবি ও তার সাহিত্য চর্চা র সাথে পরিচয় করিয়ে দেয় কবি কুমুদরঞ্জন মল্লিকের কথা।৩রা মার্চ ছিল তার ১৩৮তম জন্মদিন।পূর্ব বর্ধমানের কো গ্রামে কবির জন্মভিটাতে"কুমুদ সাহিত্য মেলা"- য় মনন এর তরফে বিশেষ ভাবে সংবর্ধনা জানানো হয় চলচ্চিত্র পরিচালক সাংবাদিক ও অভিনেতা রাজকুমার দাস মহাশয় কে।তার হাতে স্মারক মানপত্র উত্তরীয় তুলে দেন সাহিত্যিক ষষ্ঠিপদ চট্টোপাধ্যায়, সোনালী কাজী ও মোল্লা জসীমউদ্দীন।
উল্লেখ্য কবিকে নিয়ে পরিচালক রাজকুমার দাস ২০০৯সালে "পল্লী কবি কুমুদরঞ্জন"-শীর্ষক এক তথ্যচিত্র পরিচালনা করেছিলেন,যা অনেকের নজর কেড়েছে, ছবিটি সোশ্যাল মিডিয়ায় দেখা যাচ্ছে।কবির ছাত্র ছিল বিদ্রোহী কবি নজরুল ইসলাম, যা বর্তমান প্রজন্মের কাছে অজানা।কবিকে স্মরণ করতে এদিন শতাধিক মানুষ ও গ্রামবাসী রা উপস্থিত ছিলেন।

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

Post Bottom Ad

Responsive Ads Here

Pages